কালিগঞ্জ উপজেলায় নৌকা ৫, স্বতন্ত্র ৬ ও লাঙ্গল প্রতিকে ১ জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন

ডেস্ক রিপোর্টঃ সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে স্থানীয় সরকার নির্বাচন (ইউপি) শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নের মধ্যে নৌকা প্রতিকে ৫ জন, লাঙ্গল প্রতিকে ১ জন ও ৬ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয় হয়েছে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮ টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরামহীন ভোট গ্রহন হয়। অনেকটা উৎসবমুখর পরিবেশে এ ভোটে উপজেলার ১ নং কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে সাফিয়া পারভীন (লাঙ্গল) বিজয়ী হয়েছে। তার নিকটতম প্রার্থী ছিলেন জি এম রবিউল্লাহ বাহার। ২ নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে জাহাঙ্গীর আলম (স্বতন্ত্র)বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম একমাত্র প্রার্থী শেখ রিয়াজ উদ্দীন। ৩ নং চাম্পাফুল ইউনিয়নে মোজাম্মেল হক( নৌকা) নির্বাচীত হয়েছেন। নিকটতম প্রার্থী আব্দুল লতিফ মোড়ল। ৪ নং দক্ষীন শ্রীপুর ইউনিয়নে গোবিন্দ মন্ডল (নৌকা)নির্বাচীত হয়েছেন। নিকটতম প্রার্থী জুলফিক্কার সাঁপুই। ৫ নং কুশুলিয়া ইউপিতে শেখ আবুল কাশেম আব্দুল্যাহ (নৌকা) নির্বাচীত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদন্দী ছিলেন খান লতিফুর রহমান বাবলু। ৬ নং নলতা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হয়েছেন আজিজুর রহমান পাড় (স্বতন্ত্র), নিকটতম প্রার্থী আবুল হোসেন পাড়। ৭ নং তারালী ইউপিতে চেয়ারম্যান হয়েছেন এনামুল হোসেন ছোট (নৌকা)। নিকটতম আব্দুল গফুর। ৮ নং ভাড়াশিমলা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হয়েছেন নাজমুল হাসান নাঈম (স্বতন্ত্র), নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আবুল হোসেন। ৯ নং মথুরেশপুর ইউপিতে আব্দুল হাকিম (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান হয়েছেন। নিকটতম প্রার্থী আব্দুল ওয়াহেদ মারুফ। ১০ নং ধলবাড়িয়া ইউপিতে আলহাজ্ব গাজী শওকাত হোসেন (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান হয়েছেন। নিকটতম প্রার্থী সজল মুখার্জী। ১১ নং রতনপুর ইউপিতে আলিম আল রাজী টোকন (নৌকা) চেয়ারম্যান হয়েছেন। নিকটতম আলহাজ্ব আব্দুল ওয়াহেদ। ১২ নং মৌতলা ইউপিতে ফেরদাউস মোড়ল (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান হয়েছেন। নিকটতম প্রার্থী ছিলেন শেখ আলমগীর হোসেন। উপজেলা রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার রবিউল ইসালামের নেতৃত্বে পৃথক ৬ জন সহকারী রির্টার্নিং অফিসারের সমন্বয়ে একটি অবাধ সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এ নির্বাচনে ১২ টি ইউনিয়নে ৪জন পুনঃ নির্বাচীত হয়েছেন। বাকী ৮ জন চেয়ারম্যান হিসাবে নতুন।

Related posts

Leave a Comment