দেবহাটা সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক

বিশেষ প্রতিনিধি : বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্প্রীতি ও সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে সীমান্তে অপরাধ দমন করতে চায় দু’দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)। বিশৃঙ্খলা একে অন্যের ওপর দোষারোপ নয়, বরং পারস্পরিক সম্পর্ক অক্ষুন্ন রেখে সীমান্তে অপরাধ দমনে ঐক্যবদ্ধ বিজিবি ও বিএসএফ। এতে করে দুই দেশের মধ্যে সুসম্পর্ক অটুট থাকবে বলেও মনে করছেন প্রতিবেশী দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী।
বৃহষ্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্তে অধিনায়ক পর্যায়ের পতাকা বৈঠকে আলোচনার মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নীলডুমুর ১৭ বিজিবি ব্যাটেলিয়ানের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ কামরুল আহসান এবং ভারতের ৮৫ বিএসএফ’র কমান্ড্যান্ট শ্রী অনুরাগ মানী।
বিজিবি’র আমন্ত্রণে বেলা ১১টায় স্পিডবোট যোগে ইছামতি নদীর বাংলাদেশের সীমারেখা অভ্যন্তরে রূপসী দেবহাটা ম্যানগ্রোভ পর্যটন কেন্দ্রে এ পতাকা বৈঠকে যোগ দেন বিএসএফ’র কমান্ড্যান্ট অনুরাগ মানী’র নের্তৃত্বাধীন ৮ সদস্য বিশিষ্ট বিএসএফ’র প্রতিনিধি দল। সেখানে বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ কামরুল আহসানের নের্তৃত্বে ১০ সদস্য বিশিষ্ট বিজিবি’র প্রতিনিধি দলের সাথে টানা ঘন্টাব্যাপী বৈঠকে দু’দেশের সীমান্ত রক্ষাসহ একাধিক বিষয়ে আলোচনা ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেন দুই বাহিনীর অফিসাররা।
এরআগে বাংলাদেশ সীমানায় পৌঁছাতেই বিএসএফ’র প্রতিনিধি দলকে অভ্যর্থনা জানায় বিজিবি। বৈঠকে বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত এ্যাডজুটেন্ট ক্যাপ্টেন শাহ্ রেজা আফ-ফামি, ভারপ্রাপ্ত কোয়ার্টার মাস্টার সহকারি পরিচালক শাহ্ খালেদ ইমাম, বিএসএফ’র ডেপুটি কমান্ড্যান্ট মুকেশ কুমার সহ দু’দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর উচ্চপদস্থ অফিসাররা উপস্থিত ছিলেন।
পাতাকা বৈঠক শেষে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ কামরুল আহসান।

Related posts

Leave a Comment