প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

গত ৩ জানুয়ারি ২০২৩ ইং তারিখ মঙ্গলবার দৈনিক যুগের বার্তা ও সাতঘরিয়া পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের শিরোনাম “শহরের পৈত্রিক জমিতে আবাসিক ভবন নির্মানে বাঁধা” সংবাদটি আমার দৃষ্টি গোচর হয়। সংবাদে উল্লেখ যে, ২ জানুয়ারী সোমবার বেলা অনুমানিক ১২টার দিকে সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল গ্রামের মৃত নূর আহম্মদ খানের স্বত্ত¡ দখলী ১১৩৫০, ১১৩৫২, ১১৩৫৬, ১১৩৫৪, ১১৩৪৮, ১১৩৪৯ দাগের ২৫.৮৫ একর জমি যাহা বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালত সাতক্ষীরা দেওয়ানী ৫৪/২০২১ নং মামলা দায়ের করেন ড: রবিউল ইসলাম খান দিং বাদী হয়ে বিবাদী মোঃ ফয়জুল কবির খান বিপু এর নামে। উক্ত মামলায় বিজ্ঞ আদালত বিবাদীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারী হয়। পরবর্তীতে ১৫/১১/২০২২ তারিখে উক্ত নিষেধাজ্ঞা আদালত কর্তৃক প্রত্যাহার হয়। পরবর্তীতে উক্ত রায়ের বিরুদ্ধে বাদী ড: রবিউল ইসলাম খান দিং মহামান্য হাইকোর্টে সিভিল রুল নং- ৭৭৩ (ঋগ) ড়ভ ২০২২ ঋ.গ. ঘড় ২৭৪ ড়ভ ২০২২ নং মামলায় আপিল গ্রহন হয় এবং উক্ত বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ আদালতের রায় ৬ মাসের জন্য আদালত স্থগিত করে নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখেন। সংবাদে আরও বলা হয় যে, শরিফুল ইসলাম খান লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে জোর পূর্বক দখল করতে যান ও সাদা পোষাকধারী পুলিশ নিয়ে জমিতে বিল্ডিং নির্মান বন্ধ করান, যাহা আদৌ সত্য নহে। ফয়জুল কবীর খান মহামান্য হাই কোর্টের আদেশ অমান্য করিয়া আমাকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করে এবং গায়েব জোর দেখায়ে তার সাথে থাকা কয়েকজন অন্যের জমি দখলকারদের নিয়ে জমিতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। আমি মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ নিয়ে সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এর নিকট যাই এবং অফিসার একজন দারোগা সাহেব পাঠান এবং উক্ত ফয়জুল কবীর খান সাংবাদিক ভাইদের ভুল তথ্য পরিবেশন করে সংবাদ পরিবেশন করেছেন। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
শরিফুল ইসলাম খান।

Related posts

Leave a Comment