রাজনৈতিক জটিলতার কারনে পাটকেলঘাটা বাজারে প্রবেশের প্রতিটা রাস্তার বেহাল দশা

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি: পাটকেলঘাটা সাতক্ষীরা জেলার সর্ববৃহৎ বাণিজ্য কেন্দ্র হয়েও উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে একেবারে পিছিয়ে রয়েছে। পাটকেলঘাটা বাজারে প্রবেশের প্রতিটা রাস্তার বেহাল দশা। সাধারন জনগন প্রবেশ করতেই চাইছেনা বাজারে।
সাতক্ষীরা জেলার অবহেলিত পাটকেলঘাটা বাজারের রাস্তা ঘাটের অবস্থা দেখলে বোঝা যায় দৃশ্যমান রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বর্হিপ্রকাশ ঘটেছে এখানে। শুধু রাজনৈতিক জটিলতার কারনে উপজেলার প্রায় ২ লক্ষ ৯৯ হাজার ৪শ সাধারন মানুষ চরম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে। ব্যবসায়িক ভাবে কোটি কোটি টাকা লোকশান গুনতে হচ্ছে বাজারের ব্যবসায়ীদের। অধিকাংশ ব্যবসায়ী ব্যাংক বীমা এনজিও কর্মীদের অভিযোগ রাস্তার বেহাল দশা না হলে পাটকেলঘাটা উন্নয়নের জোয়ারে ভাসতো। পাটকেলঘাটা বাজারের সমস্ত রাস্তাঘাট বছরের ১২ মাস চলাচলের অযোগ্য হয়ে থাকে। আর বর্ষা মৌসুম আসলে তো চরম ভোগান্তী পোহাতে হয় বাজারে আসা সকল পেশা শ্রেণীর মানুষদের। অভিভাবকহীন অবস্থায় রয়েছে পাটকেলঘাটা বাজারের প্রায় ৯টি রাস্তা। প্রত্যান্ত অঞ্চল থেকে জেলার পাটকেলঘাটা বাজারে প্রবেশের ওভারব্রীজ সড়ক, হাইস্কুল রোড, পল্লী বিদ্যুৎ সড়ক, বলফিল্ড সড়ক, কলেজ সড়ক, পশ্চিমপাড়া সড়ক, জোড়া টাওয়ার সড়ক, কালীবাড়ী সড়ক, কাউন্সিল সড়কের ভগ্নদশা চোখে না দেখলে বোঝার উপায় নেই। রাস্তা প্রবেশের মুখে হাটুপানি কাদা জামে নাভিশ্বাস হওয়ার উপক্রম। এছাড়া বাজারে নেই কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা, যে কারনে রাস্তার দু’ধারে পানি জমে ময়লা আবর্জনার স্তুপ জমে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়ে বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠেছে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষায় রাস্তায় হাঁটু পানি জমে যায়। এছাড়া দীর্ঘদিন রাস্তাগুলো সংস্কার না করায় বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বাজারে সহজে প্রবেশ করতে পারেনা ভারী কোন যানবাহন।
প্রতি বুধ ও শনিবার সাপ্তাহিক হাটের দিন হাজার হাজার ক্রেতা-বিক্রেতা পাটকেলঘাটায় আসে। এলাকার স্কুল-কলেজের শত শত ছাত্র-ছাত্রী এসব পথে যাতায়াত করে। চরম বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে তাদের সাথে সাধারণ মানুষেরও।
ময়লা আবর্জনা পচে দুর্গন্ধের মধ্য দিয়ে যাতায়াত করতে হয় সকলের। প্রতিনিয়ত দূর-দুরন্ত থেকে বাজারে আসা অনেক ক্রেতা-বিক্রেতাকে বাজারে এসে অনেক সময় কাদামাটি মেখে বাড়ি যেতে হয়। কাউন্সিল রোড কয়েক যুগেও সংস্কার করা হয়নি। প্রতিদিন শতাধিক মালবোঝাই ট্রাক পাটকেলঘাটার বিভিন্ন পথে আসা যাওয়া করে। এক কথায় সবগুলো রাস্তাই চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। পল্লী বিদ্যুৎ রোডেও জনসাধারণ এবং যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তবে চরম বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে হাজার হাজার ত্রেতা-বিক্রেতা। হর হামেশা ছোটখাটো দুর্ঘটনা লেগেই আছে। তাছাড়া বাজারের বিভিন্ন রাস্তার উপরে হাট বসার কারণে চরম যানজটের সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে সরুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও পাটকেলঘাটা বাজার কমিটির সভাপতি মোঃ মতিয়ার রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় এবং রাস্তায় কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় দীর্ঘস্থায়ী জলাবদ্ধতায় রাস্তা গুলোর এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সরকার প্রতি বছর পাটকেলঘাটা বাজার থেকে লাখ লাখ টাকার রাজস্ব আদায় করে। কিন্তু বাজারের তেমন উন্নয়ন হয় না। তিনি রাস্তাগুলি সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্টদের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন। তালা উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল মজিদ মোল্যা জানান, পাটকেলঘাটা বাজারের রাস্তাগুলো অনুমোদন হয়েছে। হয়তো খুব তাড়াতাড়ি টেন্ডার হবে। সাতক্ষীরা জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী নারায়ণ চন্দ্র সরকার জানান, পাটকেলঘাটা বাজারের দীর্ঘদিনের জরাজীর্ণতা খুব শীঘ্রই সমাধান হবে। পাটকেলঘাটা বাসির দীর্ঘদিনের আশা পূরণ হবে। ঠিকাদার সিলেকশন হলেই কাজ শুরু হবে।

Related posts

Leave a Comment