সাতক্ষীরা এক প্রকৌশলীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি|| ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল লুট

ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরা জেলা শহরের অদূরে লাবসা দরগাপাড়া এলাকায় কাজী আব্দুর রাশীদ নামের এক প্রকৌশলীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। সোমবার ভোর রাত ৪ টার দিকে ১০ থেকে ১২ জন অস্ত্রধারী ডাকাত বাড়ির গ্রীল ভেঙে সবাইকে জিম্মি করে ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, ৮০ হাজার টাকা , একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা লুট করে নিয়েগেছে। ডাকাতদের অস্ত্রাঘাতে প্রকৌশলী আব্দুর রাশীদের বৃদ্ধা মা রাহেলা বেগম (৮২) মারাত্মক জখম হয়েছে। সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ, র‌্যাবের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
বাড়ির মালিক প্রকৌশলী কাজী আব্দুর রাশীদ জানান, রাত ৪ টার দিকে ৬ থেকে ৭ জন ডাকাত জ¦ানালার গ্রীল ভেঙে ঘরের ভিতর প্রবেশ করে। প্রথমে তারা তার বৃদ্ধা মা রাহেলা বেগম কে রাম-দা দিয়ে আঘাত করে। তিনি মারাত্বক জখম হন। মার চিৎকারে দ্বিতীয় তলা থেকে নেমে এসে দেখতে পায় রক্তাক্ত অবস্থা। সবার হাতে রাম দা । তারা একে একে বাড়িরে সবাইকে বেঁধে ফেলে এবং মোবাইল গুলো নিয়ে নেয়। অস্ত্রেরমুখে তাদেরকে জিম্মি করে আলমারীর চাবিনিয়ে নগদ টাকা ও সোনার গহনা নিয়ে যায়। তিনি বলেন, ডাকাতদের বয়স ২০ থেকে ২৫ বসরের মধ্যে হবে। মুখে কাপড় বাঁধা ছিল। তারা যাওয়ার সময় হুমকী দিয়ে বলেগেছে , কাউকে বললে পরবর্তীতে তাদের ছেলে মেয়েদের অপহরন করা হবে।
প্রকৌশলী কাজী আব্দুর রাশীদের একমাত্র মেয়ে আমেরিকা প্রবাসী শাম্মা বিনতে রাশীদ (৩০) জানান, ২৫ দিন আগে তিনি আমেরিকা থেকে বাড়িতে ফিরেছেন। তার, তার মা ও চাচির গায়ে যত গহনা ছিলো সবই ডাকাতরা কেড়ে নিয়ে গেছে। এছাড়া আলমারীতে যেসব গহনা ও টাকা ছিলো তাও নিয়ে গেছে। সমস্ত বাড়ি তছনছ করেছে দুর্বৃত্তরা। ডাকাতরা সবাই যুবক। ঘরের ভিতর ৬/৭ জন প্রবেশ করে। ঘরের বাইরে ছিল আরও ৪/৫ জন।
প্রকৌশলী কাজী আব্দুর রাশীদের স্ত্রী শাকিলা হোসেন (৫২) জানান, বাড়িতে আমরা ৮জন ছিলাম। তারা সবার হাত বেঁধে ফেলে। রাম-দা, সাবলসহ দেশীয় অস্ত্র ছিলো তাদের হাতে। প্রায় ১৫ ভরি স্বর্ণাংকার, নগদ ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা , একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা লুট করে নিয়েগেছে। যাওয়ার সময় মোবাইল গুলো ঘরের ভিতর ফেলে রেখে গেছে তারা।
সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি গোলাম কবীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বাড়ির মালিক প্রকৌশলী কাজী আব্দুর রাশীদ এ ব্যাপারে অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনা জানার পরপরি তিনিসহ পুলিশের উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, মনে হচ্ছে এটি একটি পরিকল্পিত ডাকাতির ঘটনা। সোমবার ভোর রাত ৪ টার দিকে একটি সঙ্গবদ্ধ ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গেষ্টরুমের গ্রীল ভেঙে বাড়ির ভিতর প্রবেশ করে। পুলিশ ডাকাতির ঘটনায় জড়ীতদের খোঁজে মাঠে নেমেছে।

Related posts

Leave a Comment